• ঢাকা
  • সোমবার, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ২৮ নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

Advertise your products here

Advertise your products here

Advertise your products here

দূর্ঘটনা এড়াতে চবির ১নং গেইটে ওভারব্রিজ স্থাপন জরুরি।


Newsofdhaka24.com ; প্রকাশিত: বুধবার, ০৩ আগষ্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০৪:৫৪ পিএম
চবি

সারওয়ার মাহমুদ,

(চবি প্রতিনিধি)

২১০০ একর চবি ক্যাম্পাসের শহর-ক্যাম্পাস যাতায়াতের অন্যতম মাধ্যম শাটল হলেও ছাত্র ছাত্রীদের একটি বড় অংশ হাটহাজারী-নিউমার্কেট সড়কে বাস দিয়ে শহরে যাতায়াত করে।চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শহিদ আব্দুর রব সড়ক ও হাটহাজারীর যোগসূত্র হল ১নং গেইট। এখানে দিনে হাজার -হাজার যানবহন ও মানুষ চলাচল করে।এ রোড় দিয়ে সিএনজি,লোকাল এবং দুরপাল্লার বাস সহ অনেক যান চলাচল করে বেপরোয়া ভাবে।অনেকটাই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের হাজার হাজার ছাত্রছাত্রী সহ শিক্ষক কর্মকর্তা কর্মচারীকে এই রাস্তা পারাপার হতে হয়।

 

 

নেই কোনো ওভারব্রিজ এমনকি স্পীড ব্রেকার।যার কারনে প্রতিনিয়ত দূর্ঘটনার আশংকা নিয়ে চলাচল করে হাজারো মানুষ।

 

মানা হয় না গতিবিধি,বেপরোয়া গাড়ি চলাচল ও পথচারীদের অসাবধানতা এখন ১নং গেইটের নিত্যদিনের ঘটনা। একটি ওভারব্রিজ হলে হয়তো এই সমস্যা টা লাঘব হতো বলে জানান ছাত্র-ছাত্রী ও স্থানীয় লোকজন।

 

 এ বিষয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন বিভাগের ছাত্র মো: আল আমিন বলেন-

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে যাতায়াতের মাধ্যম হিসেবে সাধারণত অধিকাংশ শিক্ষার্থী শাটলকে বেছে নেয় তবে, বাস দিয়ে যাতায়াত করা শিক্ষার্থীর সংখ্যাও কম নয়। চবি থেকে নিউমার্কেটর অব্দি যেতে কিংবা হাটহাজারী যেতে শিক্ষার্থীদের যেতে হয় ১নং গেটে। তবে রাস্তা পারাপারে রীতিমতো হোঁচট খেতে হয়। চালকদের বেপরোয়া গতিতে বাস, ট্রাকসহ অন্যান্য যানবাহন চালানোতে যেনো কোনো লাগাম নেই।

একদিন আমি খুব জরুরি প্রয়োজনে বাসে যাওয়ার জন্য ১নং গেটে আসি তবে রাস্তা পারাপার হতে আমাকে অপেক্ষা করতে হয় দীর্ঘক্ষণ, 

চালকরা যেনো রাস্তা পারাপারের জন্য অপেক্ষমান মানুষদের দেখছেনই না। দ্রুত গতিতে গাড়ি,বাস, ট্রাক চালান। নারী, শিশু ও বৃদ্ধদের জন্য তা আরও ভয়ের কারণ হয়ে উঠেছে। একটু অসাবধানতায় হতে পারে মারাত্মক সড়ক দুর্ঘটনা। তাই এই বিষয়ে চবি প্রশাসন সহ সংশ্লিষ্টদের দ্রুত ওভার ব্রীজ নির্মাণে পদক্ষেপ নেওয়া সময়ের দাবী।এভাবে চলতে থাকলে যেকোন মূহুর্তে বড়ধরনের দূর্ঘটনার সম্মুখিন হওয়া লাগতে পারে।

যা সকলের জন্য অপূরণীয় ক্ষতির কারণ হয়ে দাড়াবে।

তাই বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এবং সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি..অতিদ্রুত যেন মহাসড়কে ওভারব্রিজ ও স্পীড ব্রেকার দিয়ে আমাদের সুষ্ঠুভাবে রাস্তা পারাপার নিশ্চিত করা হয়।

আরেক জন স্থানীয় পথচারী বলেন- আমি গত কয়েক দিন আগে রাস্তা পার হচ্ছি এমন সময় একটা সিএনজি আমাকে ধাক্কা মেরে চলে যায়।কখনও ড্রাইভার তাদের চালানোর গতির দিকে খেয়াল রাখে এখানে অতি দ্রুত ওভারব্রিজ স্থাপনের জন্য চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও সড়ক বিভাগের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

 

একটা দুর্ঘটনা হতে পারে সারা জীবনের কান্না। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ও নগরীর গুরুত্বপূর্ণ এই স্থানে একটি ওভারব্রিজ স্থাপন করা অত্যাবশ্যকীয় হয়ে উঠেছে।এই  এতে চবির শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসির নিরাপদ চলাচলের নিশ্চয়তা পাওয়া যাবে, এড়ানো যাবে অনাকাঙ্খিত দূর্ঘটনা।।

Newsofdhaka24.com / নিজস্ব প্রতিবেদক

ক্যাম্পাস বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ