• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

Advertise your products here

Advertise your products here

Advertise your products here

মরিচের ঝালে,দিশেহারা ক্রেতারা


Newsofdhaka24.com ; প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ১১ আগষ্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০৫:১৩ পিএম
মরিচের ঝালে
মরিচের ঝাল,

আকাশ রহমান,ঠাকুরগাঁওঃ ঠাকুরগাঁওয়ের খুচরা বাজারে প্রতি কেজি কাঁচামরিচের দাম ৩০০ টাকায় ঠেকেছে। এছাড়াও শুকনা মরিচ বিক্রি হচ্ছে ৪৮০ টাকা কেজিদরে।

 ঠাকুরগাঁওয়ে বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা যায়, পাইকারি বাজারে কাঁচামরিচ পাইকারি বিক্রি হচ্ছে কেজি প্রতি ২৩০ টাকা যা খুচরা বাজারে ২৮০ টাকা কেজিতে কিনতে হচ্ছে। আর শুকনা মরিচ ৪২০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে যা খুচরা বাজারে ৪৮০ টাকা।

মরিচের দামে ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছে সাধারন ক্রেতারা। বাজারের ক্রেতা রকি বলেন, সবসময় ৫ থেকে ১০ টাকার মরিচ নিয়ে বাসায় যেতাম। এখন শুধুমাত্র মরিচ কিনতে হচ্ছে ১০০ থেকে ১৫০ টাকার। যা আমাদের অসম্পূর্ণ কাচাঁবাজার কেনার বাজেট। সময় বুঝে সবকিছুর দাম বেড়ে যায়। বাড়েনা শুধু আমাদের আয়।

খুচরা ব্যবসায়ী শাহিন জানান, আরদের পাইকারি বাজারে বেশিদামে কিনে বিক্রিও করতে হচ্ছে বেশিদামে। তবে সবচাইতে বেশি সমস্যায় পরেছে ক্ষুদ্র পুঁজি নিয়ে আসা ব্যবসায়ীরা। ১০০ কেজির মরিচের বস্তা কিনতে ২২ থেকে ২৩ হাজার টাকা দরকার। এতো পুঁজি অনেক ক্ষুদ্র কাঁচামাল ব্যবসায়ীর কাছেই নেই।

আরদদাররা বলছেন মরিচের আমদানি না থাকায় বাজার বেশি। 

আরদদার সোহেল জানান, যেদিন ভারত থেকে এলসি মরিচ আসছে সেদিন ২০/৩০ টাকা দাম কমছে। তবে এলসি না ঢুকলেই আবারো বাজার বেড়ে যাচ্ছে।

আমদানি কম হওয়ার কারন হিসেবে তারা অতিরিক্ত খরার কারন জাচ্ছেন।

এই দিকে ঠাকুরগাঁও কাঁচামাল আরদের আরদদার মেহেদি হাসান বলেন, অতিরিক্ত রোদের তাপের কারনে মরিচের ফুল থেকে ফলন আসছেনা। ফুল ঝড়ে যাচ্ছে।  তাই মরিচের সংকটে আমদানি কম। তবে খুব শীঘ্রই মরিচের দাম কমতে পারে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্তকরেন।

Newsofdhaka24.com / নিজস্ব প্রতিবেদক

অর্থনীতি বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ