• ঢাকা
  • রবিবার, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ২২ মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

Advertise your products here

Advertise your products here

Advertise your products here

তথ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন দেশের মানুষ সুখ-সমৃদ্ধি ফিরে পেয়েছে


Newsofdhaka24.com ; প্রকাশিত: রবিবার, ২০ মার্চ, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১২:১৩ এএম
তথ্যমন্ত্রী
দেশের মানুষ সুখ-সমৃদ্ধি ফিরে পেয়েছে,

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক ডঃ হাসান মাহমুদ জানিয়েছেন, জাতিসংঘের ওয়ার্ল্ড হ্যাপিনেস রিপোর্ট অনুযায়ী দেশ সুখের তালিকায় বাংলাদেশ ৭ ধাপ এগিয়ে গিয়েছে।.


দেশের এই এগিয়ে যায় প্রমাণ করে দেয় মানুষের সুখ ও সমৃদ্ধি।
১৯ মার্চ (শনিবার) বিকালে রাজধানীর মিন্টো রোডে নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে এ কথা জানিয়েছেন তিনি।
উপস্থিত ছিলেন বেলজিয়াম আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হুমায়ুন মকসুদ হিমু।
জাতিসংঘের ওয়ার্ল্ড হ্যাপিনেস রিপোর্ট অনুযায়ী বাংলাদেশ সুখী ইন্ডিজকে সাত ধাপ এগিয়ে গিয়েছে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী।
এখন সাত ধাপ এগিয়ে ৯৪ তম স্থানে উন্নতি হয়েছে। আগে ছিল ১০১ তম।  প্রতিবেশী দেশ ভারত অবস্থান করেছে ১৩৬ ও পাকিস্তানের অবস্থান ছিল ১২১তম।
করোনার মহামারীর মধ্যেও যখন বিশ্ব অর্থনীতির প্রচণ্ড চাপের মধ্যে ছিল তখন অনেকের মতে বিশ্ব অর্থনীতিতে মন্দা চলছিল একথা জানিয়েছেন হাছান মাহমুদ।
প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা, সরকারের নেতৃত্বে বাংলাদেশের মানুষের এখন সুখ-সমৃদ্ধি বেড়েছে, বাংলাদেশে এখন সাত ধাপ ওয়াল্ড হাপিনেস ইন্ডেক্স প্রমাণ করেছে।
বিএনপি ও তাদের মিত্ররা ক্রমাগতভাবে দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত না হতো দেশবিরোধী অপপ্রচার না চালাতো তাহলে দেশের মানুষ সুখে থাকতো। ওয়ার্ল্ড হ্যাপিনেস ইনডেক্সে আমরা আরো অগ্রসর হতে পারতাম সূচক এর অন্যতম মূল বিষয় হচ্ছে মানুষ নিজেকে সুখী মনে করছে কিনা তার ওপর।
বিএনপির প্রতিদিন অপপ্রচার     চালিয়ে যাচ্ছে প্রেসক্লাবের সামনে পল্টনে দেশের বিভিন্ন জায়গায় সভা-সমাবেশ করে মানুষকে অসুখী করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে তারা। এই অপচেষ্টা চালানোর মধ্য দিয়েও জননেত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে গিয়েছে আরও সাত ধাপ, জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের কারণেই এটি সম্ভব হয়েছে।
আশা করা যাচ্ছে এই সংবাদ প্রচার এর পরে বিএনপি আর মানুষকে অসুখী করার অপচেষ্টা চালাবে না জানিয়েছেন মন্ত্রী।
সরকারকেও তারা অভিনন্দন জানাবে ।
যুদ্ধ ও করো না পরিস্থিতির কারণে সারা পৃথিবীতে দ্রব্যমূল্যর হার বৃদ্ধি পেয়েছে। 
আমাদের সরকার এক কোটি পরিবার অর্থাৎ পরিবারে পাঁচ জন থাকলে পাঁচ কোটি মানুষকে টিসিবির পন্যর মাধ্যমের ন্যায্য মূল্যে পণ্য দেওয়ার ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন।
প্রতি কেজি চাল এর মূল্য ৩০ টাকা ,আটা ১৮ টাকা,চিনি ৫৬ টাকা ,মসুর ডাল ৬৫ টাকায়, পেঁয়াজ ৩০টাকা ,সয়াবিন তেল প্রতি লিটার ১১০ টাকা।
সরকার নিম্ন মানের আর মানুষের জন্য যথাযথ ভাবে এ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।. .

Newsofdhaka24.com / নিজস্ব প্রতিবেদক

জাতীয় বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ