• ঢাকা
  • শনিবার, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ; ২৪ ফেরুয়ারী, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

Advertise your products here

Advertise your products here

Advertise your products here

ইন্টারনেটের স্বল্পমেয়াদী প্যাকেজ বন্ধ হচ্ছে, ক্ষুব্ধ অপারেটররা


Newsofdhaka24.com ; প্রকাশিত: রবিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ১১:৫২ এএম
ইন্টারনেট প্যাকেজ
ইন্টারনেট

বন্ধ হয়ে যাচ্ছে প্রায় ৭০ শতাংশ মোবাইল ফোন গ্রাহকের পছন্দের তিন দিনের ইন্টারনেট প্যাকেজ। গত সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) মোবাইল অপারেটরদের জানিয়ে দেয়, আগামী ১৫ অক্টোবর থেকে এই প্যাকেজ বন্ধ করতে হবে। একই সঙ্গে বন্ধ করতে হবে ১৫ দিন মেয়াদি প্যাকেজও। আর মোট প্যাকেজের সংখ্যা ৯৫ থেকে কমিয়ে ৪০-এর মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখতে হবে।

বিষয়ে বিস্তারিত নির্দেশনা এবং কী কারণে এই পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে, তা জানাতে আজ রবিবার বিটিআরসি ভবনে আয়োজিত এক সভায় সাংবাদিকসহ টেলিযোগাযোগ খাতসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

মোবাইল ফোন অপারেটরদের হিসাব অনুযায়ী, তাদের ইন্টারনেট প্যাকেজ ব্যবহারকারীদের মধ্যে সর্বোচ্চসংখ্যক ৬৯.২৩ শতাংশ ব্যবহার করে তিন দিনের ইন্টারনেট প্যাকেজ। বাকিদের মধ্যে ১৬.৮৪ শতাংশ ব্যবহার করে সাত দিনের ১০.১১ শতাংশ ব্যবহার করে ৩০ দিনের প্যাকেজ।

মোবাইল অপারেটর বাংলালিংকের পক্ষ থেকে জানানো হয়, তাদের ইন্টারনেট ডাটা বিক্রির প্রায় ৫০ শতাংশই তিন দিন মেয়াদের প্যাকেজের গ্রাহক।

এই প্যাকেজের আওতায় এক জিবি থেকে শুরু করে ১০ জিবি পর্যন্ত ডাটা ব্যবহার করা যায় এবং এগুলোর দাম ৩০ থেকে ১০০ টাকা পর্যন্ত। প্যাকেজের গ্রাহকরা সাধারণত মোট ডাটার প্রায় ৯০ শতাংশই মেয়াদের মধ্যেই ব্যবহার করে থাকে। বিটিআরসি পরিচালিত গ্রাহকদের মতামতের জরিপের ফলাফলে দেখা যাচ্ছে, ৪১.০৩ শতাংশ গ্রাহক ইন্টারনেট প্যাকেজ পরিবর্তনের নতুন এই সিদ্ধান্তের বিপরীতে মতামত দিয়েছে।

মোবাইল ফোন অপারেটররা যা বলছে

মোবাইল ফোন অপারেটরদের পক্ষে বলা হচ্ছে, জনপ্রিয় তিন দিনের প্যাকেজ বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্তে শিক্ষার্থী এবং নিম্ন আয়ের মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

নিম্ন আয়ের অনেক গ্রাহক প্রবাসে থাকা তাদের প্রিয়জনদের সঙ্গে ফেসবুক মেসেঞ্জার, হোয়াটসঅ্যাপ ইত্যাদি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কথা বলার জন্য একটি নির্দিষ্ট সময়ে স্বল্পমেয়াদি ইন্টারনেট প্যাকেজ ব্যবহার করে। আবার অনেকে স্থায়ীভাবে কর্মক্ষেত্রে বাসায় ফিক্সড ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট ব্যবহার করলেও জরুরি প্রয়োজনে স্বল্প মেয়াদের মোবাইল ইন্টারনেট প্যাকেজ ব্যবহার করে। এরাও সমস্যায় পড়বে। নতুন এই সিদ্ধান্তে মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা কমে যেতে পারে বলেও আশঙ্কা করা হচ্ছে। নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি হয়তো বিবেচনা করতে পারে যে এই ধরনের গ্রাহকরা প্যাকেজের সব ডাটা ব্যবহার করতে পারছে না

সূত্র: কালের কন্ঠ

Newsofdhaka24.com / News

তথ্যপ্রযুক্তি ও বিজ্ঞান বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ